Category: কবিতা

পুনশ্চ জন্মদিন

সেবারের পঁচিশে দেবী তুমি বর দিয়েছিলে শিরোনামহীন অনুভূতিরাও যেন ভরিয়ে তোলে আমার বুভুক্ষু প্রান্তর;…   বিস্তারিত পড়ুন

একটি অপার্থিব যুদ্ধের বিবরণ

আজ হঠাৎ ঘোষনা করে দিলাম নিয়তির সাথে যুদ্ধ, নিয়তি তার ঢাল তলোয়ার সমেত এলেন আমার বিস্তির্ণ রণময়দানে। স্বাগতিক হিসেবে আমিই প্রথম তাকে জানালাম আমার হাস্যময় অভিবাদন।…   বিস্তারিত পড়ুন

যাদুকরের চোখ

তোমার অনুভুতির হিমালয় থেকে নেমে এলো যাদুকর, ঠিক তোমার বুকের প্রজাপতির পাখায়! তোমার চোখে সোজা তাকিয়ে বললো আমি সেই যাদুকর…   বিস্তারিত পড়ুন

কবি ও প্রত্নতত্ত্ববীদ

অতঃপর আসলেন প্রত্নতত্ত্ববিদ গাইতি শাবল হাতে খনন করতে কবির মগজ ও হৃৎপিন্ড। কার কাছে যেন খবর পেয়েছেন এ কবির ভেতরটায় লুক্কায়িত এক অনবদ্য পুরাকীর্তির ধ্বংসাবশেষ।…   বিস্তারিত পড়ুন

রুদ্র সময়ের প্রতীক্ষায়

প্রেরণার অন্ধকারে নিমগ্ন বোধ রুদ্র সময়ের প্রতীক্ষায় ফ্যাঁকাসে অনুভূতির নিমজ্জনে বর্ণীল আলোকময় স্বপ্ন পিপাসা, যেন শত শত কোটি নির্ঘুম রজনীর অন্ধকার ভেদে নব আলোয় ধরিত্রী জেগে উঠবে আবার, বীজয়ের অহংকারে। শূন্য চিত্তের প্রতিটি অঙ্গন...

এইখানে এই মাটিতে

এইখানে এই মাটিতে আমার নাড়ি প্রথিত আছে। একদিন এই বাস্তুভিটে, এখানকার কিছু মানুষ জল-হাওয়া, মাটি ও ধূলির সাথে জড়িয়ে ছিল আমার জীবন, অন্তরে-বাহিরে জড়িয়ে ছিলাম আমিও তাদের সাথে।…   বিস্তারিত পড়ুন

তিনটি কবিতা

না গৃহী না সন্ন্যাসী আমি গৃহের মাঝেই ছিলাম, টলমলে শৈশব আর ঝলমলে কৈশোর জুড়ে আমি গৃহের মাঝেই ছিলাম। হঠাৎ একদিন মাধুদিকে দেখে বুকের নাটাই টন করে উঠল,…   বিস্তারিত পড়ুন